মঙ্গলবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৩

রক্তের ক্যানভাসে রাঙা শিশু আর তার প্লাস্টিকের বাটি

গাজী সাইফুল ইসলাম

পনেরো মিনিট পড়েছিল তোমার লাশটা
সদর রাস্তার সীনা বরাবর
উন্মত্ত হাতীরা তখন মুখোমুখি হয়েছিল ওখানে
তাদের পায়ের তলে পিষ্ট হলে তুমি
পিষ্ট হলো জাতিসংঘ শিশু অধিকার

বায়তুল মোকারমে মুখোমুখি হয়েছিল ওরা
সর্বনাশ দেখেছিল নিরিহ পথচারীর চোখ
গোলা-বারুদের ধোঁয়া আর ককটেল শব্দে
দুমড়ে মুচড়ে যাচ্ছিল চারপাশের বাতাস

পনেরো মিনিট পড়েছিল তোমার লাশটা
টুকু সময়েই পেয়ে গেলে সারাজীবনের প্রচারণা
বেঁচে থাকলে হয়তো কেউ চিনত না
নাক সিঁটকাতো ভদ্রলোক, বলত, বিরক্তিকর!
সাংবাদিকের কলম দয়া করেও
তোমার জন্য লিখতো না এক লাইন

মাত্র পনেরো মিনিট পড়েছিল তোমার লাশটা
হুমড়ি খেয়ে পড়ল মিডিয়া,
তোমার ছবি দিয়ে আঁকলো রক্তাক্ত প্র্রচ্ছদ

আহা শান্ত! কতই শান্ত না হলে তুমি
কোনোদিন আর উঠবে না, ক্ষুধার কথা বলবে না,
প্লাস্টিকের বাটিটা তোমার মুখ থোবরে
পড়েছিল পাশেই
এগারো বছর কেন একশো বছর
ওটা হাতে নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও
কেউ চিনতো না এটি
এখন চিনেছে মাত্র পনেরো মিনিটে,
রক্তের ক্যানভাসে রাঙা শিশু আর তার প্লাস্টিকের বাটি
খুব কি ক্ষুধার্ত ছিলে তুমি?

১১ বছরের শান্ত



কোন মন্তব্য নেই :